শিক্ষার্থী সঞ্চয় স্কিম পরিচালনা সংক্রান্ত শর্তাবলী
১.
আঠারো বছরের কম বয়সের শিক্ষার্থীরা নিজ নামে/যৌথ নামে আমাদের যে কোনো শাখায়/এজেন্ট পয়েন্টে প্রথম কিস্তির টাকা জমা করে মাসের যে কোনো কর্মদিবসে এই স্কিমটি খুলতে পারবেন। পরবর্তী কিস্তিসমূহ প্রতিমাসের ২৮ তারিখের মধ্যে জমা দিতে হবে। ২৮ তারিখ ছুটির দিন হলে কিস্তির টাকা অবশ্যই পূর্ববর্তী কার্যদিবসে জমা দিতে হবে।
২.
শিক্ষার্থীদের পক্ষে পিতা/মাতা অথবা আইনগত অভিবাবক দ্বারা হিসাবটি পরিচালিত হবে এবং উভয়কেই বাংলাদেশের নাগরিক হতে হবে। হিসাব খোলার সময় শিক্ষার্থীকে দুই কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি, জন্ম নিবন্ধন সনদ এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পরিচয়পত্র/প্রতিষ্ঠান কর্তৃক প্রদত্ত প্রত্যয়ন পত্র/সর্বশেষ মাসের বেতন রশিদের সত্যায়িত অনুলিপি প্রদান করতে হবে।
৩.
জমাকৃত অর্থ নগদায়নের নিয়মাবলি :
ক. মেয়াদান্তে নগদায়নের নিয়মাবলি : প্রতি মাসে নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ নির্দিষ্ট সময়ের জন্য জমা করলে মেয়াদান্তে নিম্নোক্ত ছকের হারে মুনাফাসহ জমাকৃত অর্থ ফেরত পাবেন।
বছর/মাসিক কিস্তি ২০০.০০ ৩০০.০০ ৫০০.০০
৩ বছর মেয়াদপূর্তিতে প্রদেয় ৮,৬০০.০০ ১২,৯০০.০০ ২১,৫০০.০০
৫ বছর মেয়াদপূর্তিতে প্রদেয় ১৬,১৬০.০০ ২৪,২৪০.০০ ৪০,৪০০.০০
৭ বছর মেয়াদপূর্তিতে প্রদেয় ২৫,৬০০.০০ ৩৮,৪০০.০০ ৬৪,০০০.০০
১০ বছর মেয়াদপূর্তিতে প্রদেয় ৪৪,৪৬০.০০ ৬৬,৬৯০.০০ ১১১,১৫০.০০
খ. মেয়াদপূর্ব নগদায়নের নিয়মাবলি : মেয়াদপূর্তির পূর্বে কোনো আমানতকারী টাকা উত্তোলন করতে চাইলে কিংবা পরপর ছয়টি (৬) টি কিস্তি পরিশোধে ব্যর্থ হলে নিম্নোক্ত নিয়মে জমাকৃত অর্থসহ মুনাফা দেয়া হবে :
i. ৬ মাসের কম সময়ের পূর্বে নগদায়নের ক্ষেত্রে শুধুমাত্র জমাকৃত অর্থ ফেরতদেয়া হবে ।
ii. ৬ মাস ও তার বেশি কিন্তু ৩ বছরের কম সময়ের পূর্বে নগদায়নের ক্ষেত্রে পূর্ণ মাসগুলোর জন্য নগদায়নকালীন সময়ে প্রচলিত সঞ্চয়ী হিসাবের সর্বনিম্ন মুনাফা হারে জমাকৃত অর্থের উপর মুনাফা প্রদান করা হবে।
iii. ক্রমিক নং ৩.ক-এ বর্ণিত যে কোনো দুটি পূর্ণ মেয়াদ (৩, ৫, ৭ ও ১০ বছর) এর মধ্যবর্তী যে কোনো সময়ে নগদায়নের ক্ষেত্রে অতিক্রান্তে পূর্ণ মেয়াদ (৩/৫/৭ বছর) ও তদানুযায়ী প্রদত্ত কিস্তির জন্য ছক অনুযায়ী প্রদেয় অর্থ এবং অবশিষ্ট পূর্ণ মাসগুলোর জন্য উক্ত প্রদেয় অর্থ ও অবশিষ্ট সময়ে জমাকৃত কিস্তির উপর নগদায়নকালীন সময়ে প্রচলিত সঞ্চয়ী হিসাবের সর্বনিম্ন মুনাফা হারে মুনাফা প্রদান করা হবে।
গ. মেয়াদোত্তর নগদায়নের নিয়মাবলি : স্কিম মেয়াদোত্তীর্ণের তারিখে নগদায়ন করা না হলে নিম্নোক্ত নিয়মে জমাকৃত অর্থসহ মুনাফা দেয়া হবে :
i. মেয়াদপূর্তির সময় হতে ১ মাসের কম সময়ের পূর্বে নগদায়নের ক্ষেত্রে শুধুমাত্র উপরিউক্ত ছক অনুযায়ী মেয়াদপূর্তিতে প্রদেয় অর্থ প্রদান করা হবে।
ii. ১ মাস ও তার বেশি কিন' ৬ মাস ও তার কম সময়ের পূর্বে নগদায়নের ক্ষেত্রে পূর্ণ মাসগুলোর জন্য নগদায়নকালীন সময়ে প্রচলিত সঞ্চয়ী হিসাবের সর্বনিম্ন মুনাফা হারে মেয়াদপূর্তিতে প্রদেয় অর্থের উপর মুনাফা প্রদান করা হবে।
iii. ৬ মাস পর যেকোনো সময় নগদায়নের ক্ষেত্রে পূর্ণ মাসগুলোর জন্য নগদায়নকালীন সময়ে প্রচলিত ছয় (৬) মাস মেয়াদী এফডিআর হিসাবের সর্বনিম্ন মুনাফা হারে মেয়াদপূর্তিতে প্রদেয় অর্থের উপর মুনাফা প্রদান করা হবে।
৪.
গ্রাহকের মৃত্যুজনিত কারণে নগদায়নের নিয়মাবলি : স্কিম সচল অবস্থায় গ্রাহক মৃত্যুবরণ করলে মৃত্যুর দিন পর্যন্ত সময়ের জন্য স্কিমের মুনাফার হার অনুযায়ী গণনাকৃত খতিয়ান স্থিতি (Ledger Balance) দেয়া হবে। অবশিষ্ট সময়ের জন্য মৃত্যু দিনের খতিয়ান স্থিতির উপর পূর্ণ মাসগুলোর জন্য নগদায়নকালীন সময়ে প্রচলিত সঞ্চয়ী হিসাবের সর্বনিম্ন মুনাফা হারে মুনাফা প্রদান করা হবে।
৫.
যে কোনো সংখ্যক কিস্তির টাকা অগ্রিম জমা দেয়া যাবে। কিস্তির টাকা যে কোনো শাখায় অথবা এজেন্ট পয়েন্টে নগদে/অন্য হিসাব হতে স্থানান্তর/standing order এর মাধ্যমে কোনো প্রকার ফি ছাড়াই জমা করা যাবে। তবে যেসব গ্রাহক এজেন্ট পয়েন্টের মাধ্যমে হিসাব খুলেছেন, হিসাব নগদায়নের জন্য সেসব গ্রাহককে অবশ্যই হিসাব খোলার আবেদনপত্রে উল্লিখিত শাখায় যোগাযোগ করতে হবে।
৬.
আমানতকারী পরপর ছয় (৬) টি কিস্তি পরিশোধে ব্যর্থ হলে হিসাবটি বন্ধ করে দেয়া হবে।
৭.
দশ বছর মেয়াদী স্কিমের ক্ষেত্রে নিয়মিত মাসিক কিস্তি জমাদানকারীকে মেয়াদপূর্তিতে এক (১) কিস্তির সমপরিমাণ টাকা বোনাস (Bonus) হিসেবে দেয়া হবে।
৮.
মেয়াদপূর্তিতে প্রদেয় (আমানত ও মুনাফা) অর্থের বিপরীতে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক আরোপিত/আরোপিতব্য সকল প্রকার কর/লেভি/ডিউটি বা সারচার্জ গ্রাহক বহন করবেন।